বাংলার উপর আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড় আম্ফান, ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা প্রবল

23

ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কার মধ্যেই বাড়ছে আবহাওয়ার (Weather) তাপমাত্রার পারদ। এপ্রিলের শেষের দিকে প্রবল ঝড় বৃষ্টির পর, মে মাসের শুরুর থেকে আবহাওয়ার পরিবর্তন হতে শুরু করে। ক্রমশ তাপমাত্রা এখন বৃদ্ধির পথে। বাড়ছে সূর্যের তেজ।

কিন্তু তাঁর মধ্যেই আবার ঘূর্ণিঝড় আম্ফান-র আশঙ্কা করছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। বিহার ও সংলগ্ন অঞ্চলে সৃষ্ট ঘূর্ণাবর্তের কারণে ৮ ই মে অবধি বিস্তীর্ণ অঞ্চল এবং রাজ্যের বেশ কিছু এলাকায়ও রয়েছে ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা।

সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড়ের তালিকা

এরই মধ্যে আবার উত্তর ভারত মহাসাগর, আরব সাগর এবং ভারত মহাসাগরে ভবিষ্যতের ঘূর্ণিঝড়ের নামকরণের জন্য ১৩ টি দেশ কর্তৃক নির্বাচিত ১৬৯ টি ঝড়ের নাম প্রকাশ করল ভারতের আবফাওয়া দফতর। নামগুলির মধ্যে গুলাব, তেজ, অগ্নি, আগ অন্যতম।

আম্ফানের প্রভাব পড়বে বাংলায়

তবে বাংলাদেশ ও মায়ানমার উপকূলে সৃষ্ট ঘুর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাব পড়তে পারে বাংলাতেও। ফলে সপ্তাহের শেষের দিকে হতে পারে ঝড় বৃষ্টি। যার জন্য ফের বদলে যেতে পারে রাজ্যের আবহাওয়া। নামতে পারে আবহাওয়ার পারদ।

শহরের তাপমাত্রা

বুধবার শহর কলকাতার (Kolkata) তাপমাত্রা বেশ কিছুটা বৃদ্ধি পেতে পারে। আজ সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে। আজ সকাল থেকেই রৌদ্রজ্জ্বল আকাশ দেখা যাচ্ছে। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে এই রোদের তেজ আবছা হতে শুরু করবে। আজ অল্প কয়েকটি জায়গায় আবার বজ্র বিদুতসহ ঝড়ের পূর্বাভাস জানান দিচ্ছে হাওয়া অফিস।

ঝড়ের মাঝেও তাপমাত্রা বৃদ্ধির সংকেত

আবহাওয়াবিদরা আগেই জানিয়েছিলেন যে, এবছর গরম বাড়বে। স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস করে বৃদ্ধি পাবে কিছু কিছু অঞ্চলে। কিছু কিছু জায়গায় ১ ডিগ্রির থেকেও বেশি বৃদ্ধি পাবে। তবে তাপমাত্রার পারদ ওঠা নামা করবে। যার দরুণ তাপমাত্রা বাড়বে, আবার কমবেও। একটানা বেশি গরম পড়বে না। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেশি থাকবে। এই বিষয়টাও কিছু প্রকাশ পাচ্ছে। তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেলে, আবার ঝড় বৃষ্টির আশঙ্কা থাকছে।

এই বিভাগের আরও সংবাদ